শীতকাল, আচমকা ঠান্ডা লেগেছে ? কিছু ঘরোয়া টিপস, জানতে পড়ুন

এই রকম আবহাওয়ায় অনেকেই নিশ্চয়ই ঠান্ডা লাগিয়ে বসে আছ? নাক দিয়ে জল পড়ছে, কাশতে-কাশতে বুকে ব্যথা, মাথা ভারী হয়ে আছে, সঙ্গে ঘুষঘুষে জ্বর?

বাইরে প্রবল গরম, এদিকে প্রায় সব স্কুল-কলেজ-অফিসেই এখন এসি। রোদ থেকে এসে সোজা ঢুকছ সেই ঠান্ডায়। আর বৃষ্টি তো রোজ লেগেই আছে। ছাতা নিয়ে না বেরলে ভিজতেই হবে! এই রকম আবহাওয়ায় অনেকেই নিশ্চয়ই ঠান্ডা লাগিয়ে বসে আছ? নাক দিয়ে জল পড়ছে, কাশতে-কাশতে বুকে ব্যথা, মাথা ভারী হয়ে আছে, সঙ্গে ঘুষঘুষে জ্বর? ডাক্তার-ওষুধ তো দরকার পড়লে আছেই। কিন্তু এই মরশুমি জ্বর-ঠান্ডা লাগা সেরে যায় কিছুদিনেই। বাড়িতেই কী-কী খেলে চটপট সুস্থ হয়ে উঠবে সেই নিয়েই রইল কিছু টিপ্‌স।

  • গোলমরিচ-মধুর সরবত: দু’ কাপ ফুটন্ত জলে এক চা-চামচ অল্প থেঁতো করে নেওয়া গোলমরিচ দিয়ে ফোটাও দশ মিনিট ধরে৷ তারপর এই জলটা ছেঁকে নিয়ে দু’ টেবিল-চামচ মধু মিশিয়ে আস্তে-আস্তে খেয়ে নাও৷ কাশি কমবে, বুকে সর্দি বসবে না৷
  • লেবু আর আদার সরবত: আধ ইঞ্চি মাপের আদা টুকরো করে কেটে নাও৷ সেটা গরম জলে ফোটাতে আরম্ভ করো৷ পাঁচ মিনিট পর নামিয়ে ছেঁকে নাও, তারপর একটা মাঝারি আকারের লেবুর রস আর এক বড় চামচ লেবুর রস মিশিয়ে খেয়ে নাও৷
  • আদা-পুদিনা-মধু দিয়ে বানাও নিজস্ব কাশির ওষুধ: এক ইঞ্চি মাপের আদা স্লাইস করে নাও৷ এক মুঠো পুদিনা ভালো করে ধুয়ে নাও৷ এক বোতল জলে দুটোকে একসঙ্গে ফোটাতে আরম্ভ করো। এক কাপের মতো পরিমাণ হলে গ্যাস বন্ধ করে আধ কাপ মধু মিশিয়ে নাও। একটু উষ্ণ থাকতে-থাকতে খাও। পুরোটা একেবারে খাওয়ার দরকার নেই, কিন্তু যখনই খাবে, তখন একটু গরম করে নেবে।
  • চিকেন স্যুপ খাও: চিকেন স্যুপ সর্দি-কাশির সমস্যায় খুব ভাল কাজে দেয় বলে দীর্ঘদিনের বিশ্বাস। সদ্য তৈরি হওয়া চিকেন স্যুপ খেতে ভাল লাগে, তা পুষ্টিগুণেও ঠাসা, সম্ভবত তা থেকেই গড়ে উঠেছে এই ধারণা। চিকেন স্যুপের সঙ্গে কিছু সবজি দিয়ে দাও, তাতে পুষ্টিগুণ আরও বাড়বে৷
  • প্রচুর ফল আর দই রাখো খাদ্যতালিকায়: প্রোবায়োটিক দই হজমশক্তি বাড়ায়, বাড়িয়ে তোলে প্রতিরোধ ক্ষমতা। আপেল, লেবু, বাতাবিলেবু, অ্যাপেল সাইডার ভিনিগার, লঙ্কা রাখো খাদ্যতালিকায়। এর ভিটামিন-সি তোমার প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াবে, তুমি তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠবে।
  • নিয়মিত ভেপার নাও, গার্গল করো: গরমজলে সামান্য নুন আর হলুদ দিয়ে গার্গল করো। কয়েক ফোঁটা ইউক্যালিপটাস তেল জলে ফেলে ভেপার নাও। ভেপার নেওয়ার সময় মাথার উপর থেকে তোয়ালে দিয়ে নেবে। এতে কফ তাড়াতাড়ি পাতলা হয়ে যাবে।
Comments
x